সহ‌যো‌গিতার বার্তা নি‌য়ে আনাই-আনু‌চিং এর বা‌ড়ি‌তে ডি‌সি প্রতাপ

99
Advertisement

: স্পোর্টস রি‌পোর্টার, খাগড়াছ‌ড়ি : বাংলাদে‌শের গর্ব ও খাগড়াছ‌ড়ির দুই কৃ‌তি সন্তান জাতীয় ফুটবলার আনাই ম‌গিনী ও আনু‌চিং ম‌গিনীর ‌খোঁজখবর নি‌তে তা‌দের বা‌ড়ি‌তে গি‌য়ে‌ছেন খাগড়াছ‌ড়ির জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস।

বুধবার সকা‌লে ক্রীড়াবান্ধব জেলা প্রশাসক অ‌নেকটা পথ মা‌ড়ি‌য়ে পা‌য়ে হে‌টে খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার সাতভাইয়া পাড়ায় অব‌স্থিত মগিনী‌দের বা‌ড়ি‌তে যান।

‌জেলা প্রশাসক সেখা‌নে দীর্ঘসময় অবস্থান নি‌য়ে ম‌গিনী প‌রিবা‌র ও এলাকার খোঁজ খবর নেন। এসময় আনু‌চিং ম‌গিনী জানান, বা‌ঁশের সেতু দি‌য়ে যাতায়াত কর‌তে হয়। পানীয় জল ও বিদ্যু‌তের সমস্যাও র‌য়ে‌ছে।

আনাই জানান, তা‌দের বাবা-মা অ‌নেক কষ্ট ক‌রে তা‌দের লেখাপড়া করা‌চ্ছেন, বড় কর‌ছেন। তারা এত ক‌ষ্টের ম‌ধ্যে‌ও দে‌শের হ‌য়ে খেল‌ছেন, সম্মান ব‌য়ে অান‌ছেন।

‌জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস ম‌গিনী‌দের অাশ্বস্থ ক‌রে ব‌লেন, আনাই ও আনু‌চিং অামা‌দের গর্ব। তা‌দের কৃ‌তি‌ত্বের কার‌ণে খাগড়াছ‌ড়ির সুনাম অা‌রো সমৃদ্ধ হ‌য়ে‌ছে। যে সমস্যার মধ্য দি‌য়ে ওরা দিন অ‌তিবা‌হিত কর‌ছে, তা অবশ্যই সমাধান করা হ‌বে।

‌তি‌নি এসময় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আনাই ও আনুচিং এর নামে দুই লক্ষ টাকা করে চার লক্ষ টাকার সঞ্চয় পত্র করে দেয়া হবে ব‌লে ঘোষনা দেন।

এসময় খাগড়াছ‌ড়ির কৃ‌তি সন্তান ও শিল্প মন্ত্রণাল‌য়ের উপস‌চিব কঙ্কন চাকমা, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সম্পাদক জু‌য়েল চাকমা, অ‌তি‌রিক্ত সাধারন সম্পাদক ধুম‌কেতু মারমা প্রমূখ উপ‌স্থিত ছিলেন।